ছোলার দামে স্বস্তি, বাড়বে না রমজানেও

অন্যান্য লিড নিউজ

   রাজধানীর সবচেয়ে বড় পাইকারি বাজার কারওয়ানবাজারের হাজি স্টোরে প্রতিকেজি অস্ট্রেলিয়ান ছোলা খুচরায় প্রকারভেদে ৭০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে। আর ছোলার ডালের দাম ৯০ টাকা। এই দোকানের স্বত্ত্বাধিকারী কামাল হোসেন বলেন, ছোলার দাম কয়েক মাস ধরেই কমতি। পাইকারি বাজার থেকে জেনেছি আসছে রমজানে ছোলার দাম বাড়বে না।

নগরীতে অন্যতম ছোলার পাইকারি বাজার চকবাজারের ওয়াটার ওয়াকার্স রোড। এই রোড ডালপট্টি নামেও পরিচিত। এখানে গত বছরের ডিসেম্বর থেকে কমতে শুরু করেছে ছোলা ও ছোলার ডালের দাম। বিভিন্ন সময়ে কমতে কমতে এখন পাইকারি বাজারে প্রতিকেজি অস্ট্রেলিয়ান ছোলা ৫৭ টাকা, বার্মিজ ছোলা ৬৮ টাকা, কানাডিয়ান ছোলা ৬০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। তবে চাহিদা না থাকায় চকবাজারে দেশি ছোলা নেই বললেই চলে।

রাজধানীর বিভিন্ন পাইকারি বাজার ঘুরে জানা গেছে, চাহিদার তুলনায় প্রচুর ছোলা আমদানি হয়েছে। ডিসেম্বর থেকেই ছোলার দাম কমতে শুরু করেছে। গত ডিসেম্বরে মানভেদে ছোলা ৭০ থেকে ৭৫ টাকা দরে বিক্রি হয়েছিলো। এখন অস্ট্রেলিয়া থেকে আমদানি করা প্রতি কেজি ভালোমানের ছোলা পাইকারি বাজারে ৫৭ থেকে ৬০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে। ডিসেম্বর থেকে বাজারে ছোলার দাম কমে যাচ্ছে।

দেশের বাজারে ৭৫ শতাংশর বেশি ছোলা আমদানি হয় অস্ট্রেলিয়া থেকে। এছাড়া দেশে উৎপাদনের পাশাপাশি মিয়ানমার, কানাডা ও ভারত থেকে আমদানির মাধ্যমেও ছোলার অভ্যন্তরীণ চাহিদা পূরণ করা হয়। এবার চাহিদার তুলনায় প্রচুর পরিমাণে ছোলা আমদানি হয়েছে, তাই সামনে দাম বাড়ার কোনো সম্ভাবনা নেই।

হাজি জাহিদ অ্যান্ড ব্রাদার্সের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও পাইকারি ছোলা বিক্রেতা মোহাম্মদ জাহিদ হোসেইন বলেন, ছোলার দাম প্রতিনিয়তই কমছে। আন্তর্জাতিক বাজারে ছোলার দাম কম। রমজান মাসে ছোলার দাম বাড়ার কোনো সম্ভাবনা নেই বরং কমবে বলে মনে করেন তিনি।

রমজান উপলক্ষে পাইকারি বাজারে এখনও ছোলা বেচাকেনা তেমন শুরু হয়নি। রমজানের এক সপ্তাহ আগে বেচাকেনা শুরু হবে। এবার স্বস্তি নিয়ে মানুষ রমজানে ছোলা কিনবে বলে জানিয়েছেন পাইকাররা।

আপনার মন্তব্য লিখুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *