মিয়ানমার বাহিনীর সঙ্গে বিদ্রোহীদের সংঘর্ষ, নিহত ১৯

সারাবিশ্ব

মিয়ানমারের শান প্রদেশের উত্তরাঞ্চলে অধিকার আদায়ের আন্দোলনে বিদ্রোহী গোষ্ঠী ও নিরাপত্তা বাহিনীর মধ্যে সংঘর্ষে ১৯ জন নিহত হয়েছেন। এসময় আহত হন অন্তত আরও ২০ জন।

শনিবার (১২ মে) ভোরে দেশটির চীনা প্রধান সীমান্তের কাছে এ সংঘর্ষ শুরু হয় বলে বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম থেকে জানা যায়।

সংঘর্ষে নিহত ১৯ জনের মধ্যে চারজন নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্য রয়েছেন। এছাড়া আহত ২০ জনকে গুরুতর অবস্থায় স্থানীয় একটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে বলে জানান দেশটির সরকারি মুখপাত্র।

সাম্প্রতিক মিয়ানমার নেত্রী অং সান সুচিকে নিয়ে বিভিন্ন সহিষ্ণুতা থেকে জাতিগত অধিকার আদায়ে বিদ্রোহীরা এ হামলা চালায়। পরে তাদের প্রতিরোধে দেশটির নিরাপত্তা বাহিনীর উত্তরের কয়েকটি দল সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে।

মিয়ানমারের সরকারি মখপাত্র জাও থে বলেন, শনিবার ভোর ৫টায় ছোট-বড় অস্ত্র নিয়ে সরকার সমর্থিত ও সেনাবাহিনীর ওপর হামলা করেন প্রায় ১০০ বিদ্রোহী। এসময় তাদের প্রতিরোধে নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা এগিয়ে আসলে দু’পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ শুরু হয়।

মিয়ানমার পুলিশের বরাত দিয়ে জাও থে আরো বলেন, সংঘর্ষে দুই নারীসহ ১৫ জন বিদ্রোহী নিহত এবং ২০ জন আহত হয়েছেন। এছাড়াও একজন পুলিশ কর্মকর্তা এবং তিনজন সেনা সদস্য প্রাণ হারিয়েছেন।

এ হামলা মিয়ানমারের সামরিকদের উদ্দেশ্য করে করা হয়েছে। যা জাতিগত অধিকার আদায়ের আন্দোলন নয়। এটি সন্ত্রাসী হামলা, এও উল্লেখ করেন দেশটির এ মুখপাত্র।

আপনার মন্তব্য লিখুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *